সাইন্স অফ লাইফ

টেরি-কাটা, জিন প্যান্টে, গিটার বাজাচ্ছে, ছেলেটা কে রে

সদ্য বিদেশ থেকে ফিরেছে

একটা বায়টেক কোম্পানি তে কাজ করে

সায়েন্টিস্ট, ক্লাব নতুন জয়েন করেছে

শুধু সায়েন্টিস্ট নয়, কূল সায়েন্টিস্ট

বাব্বা বিজ্ঞানের কি হলো

কেন কি ভেবেছিলিস, সায়েন্টিস্ট মানে

একটা চোখে চশমা আঁটা, কালো ফ্রেমের

সাধু-সাধু ভাব, শুধু ল্যাব চেনে

নিজের ল্যাব ছাড়া অন্য মেয়েদের দিকে তাকায়না

গান গাইছে, গিটার বাজিয়ে, অসুবিধে হচ্ছে নিতে

ভাবছিস তো, গান গাইলে, রিসার্চ করা যায়না

তোর মতে, গান গাইবে আর্টিস্ট, রিসার্চ করবে সায়েন্টিস্ট

তোর ধারণা, যে হেতু সাইন্স এর বেশি জোরাজুরি

নিয়ম ও পদ্ধতির ওপর

সাইন্স শুধুমাত্র একটি যান্ত্রিক প্রচেষ্টা

তোর মনে হয় , তার জন্যে যে রকমের

সিরিয়াসনেস দরকার হয়

গান গেয়ে তা সম্ভব নয়

তুই তো আর্টিস্ট, কোলাবোরেট করতে পারবিনা

তার ধারণা এবং পরীক্ষামূলক পন্থাগুলির সাথে

তোর অভিব্যক্তি, স্বাদ, ও শৈলীর

শুধু লাইফ সাইন্স জেনে কি লাইফ চালানো যায়

লাইফ চালাতে গেলে, ছেলেটা জানে

জানতে হয় লাইফ সাইন্স

এন্ড অল্সো সাইন্স অফ লাইফ